বৃষ্টি কমে শীত বাড়বে

মাঘের শীতে সারা দেশে বিভিন্ন জেলায় থেমে থেমে হয়েছে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি। আবার কোথাও হয়েছে আষাঢ়ের ন্যায় ঝুম বৃষ্টি। তাপমাত্রা কয়েকদিনের তুলনায় কিছুটা বাড়লেও বেশ কিছু স্থানে বৃষ্টির কারণে অনুভূত হচ্ছে শীত। মাঘ মাসে এমন বৃষ্টি খুব কমই দেখা যায়। গতকাল ছিল ছুটির দিন তাই রাজধানী রাস্তাঘাটে লোকজনের উপস্থিতি ছিল কম। অনেকে আবার বৃষ্টিটাকে উপভোগ করেছে বাসায় বসেই। অন্যদিকে শীতল বৃষ্টির ফোঁটা আর ঠান্ডা বাতাসে কাবু কর্মজীবী মানুষ।

আগামী দুুদিন এই অবস্থা থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এরপর উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে দেখা দিতে পারে শৈত্যপ্রবাহ। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এসময়ে সারা দেশে রাতের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাস বলছে, আজ শনিবারও বৃষ্টি হতে পারে। দুপুরের পর থেকে বৃষ্টি কমে বিকেল নাগাদ মেঘ সরে যেতে পারে। বৃষ্টি কমে এলেও আজ রাত থেকে দেশের বেশির ভাগ এলাকায় আবারও শীত জেঁকে বসতে পারে।

বিশেষ করে দেশের উত্তরাঞ্চলে শীতের অনুভূতি বেশি থাকবে। রোববার থেকে শৈত্যপ্রবাহ আবার শুরু হতে পারে। উত্তরাঞ্চল দিয়ে শুরু হওয়া শৈত্যপ্রবাহ ধীরে ধীরে আরও কয়েকটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়তে পারে।

পশ্চিমা লঘুচাপের প্রভাবে গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে দেশের বিভিন্ন জায়গায় আকাশ ছিল মেঘলা। বেলা গড়াতেই শুরু হয় বৃষ্টি।

হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সঙ্গে হিমেল হাওয়া। এতে বেড়েছে শীতের প্রকোপ। মাঘের বৃষ্টিতে ভোগান্তিতে পড়েছে নিম্ন আয়ের মানুষ।

আবহাওয়া অফিস বলছে, রোববার পর্যন্ত রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় বৃষ্টি হতে পারে। চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বজ্রসহ বৃষ্টি হবে। সারাদেশে মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত কুয়াশা পড়তে পারে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরো বলা হয়েছে, সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকলেও, দিনে ২ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত কমে যেতে পারে। শুক্রবার সকালে দেশে সর্বনিম্ন ১১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায়। এদিন ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৮ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে খুলনায় ৪৫ মিলিমিটার। তবে এই বৃষ্টি হয়েছে বেলা তিনটা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত।

অর্থাৎ অল্প সময়ে বর্ষাকালের মতো বৃষ্টি ঝরেছে। রাজধানীতে দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ১১ মিলিমিটার বৃষ্টি ঝরেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *